আমাদের ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইটে প্রায়ই এরকম সমস্যা দেখা যায় যে ইমেজ আপলোড দিতে গেলে ওয়ার্নিং মেসেজ দেখায় এবং ইমেজ আপলোড হয় না

এখন আমরা জেনে নিই যে, সমস্যাটি কি কি কারনে হতে পারে!

১/ ওয়েবসাইটের হোস্টিং স্পেস ফুল
২/ ওয়েবসাইটের রিসোর্স ইউজেস ফুল
৩/ কোন প্লাগিন করাপ্ট হয়ে গেছে
৪/ ফাইল পারমিশনে সমস্যা
৫/ মেক্সিমাম ইমেজ আপলোড সাইজ সমস্যা

এখন আমরা একটি একটি করে চেক করবো,

ওয়েবসাইটের হোস্টিং স্পেস চেক
প্রথমেই আমাদের সিপ্যানেলে লগ ইন করে চেক করবো, হোস্টিং স্পেস ফুল হয়ে গেছে কি না।

এরকম যদি আসে, তাহলে যা করতে পারেন,
১/ টেম্প ফাইল এবং ক্যাশ ক্লিয়ার করতে পারেন
২/ অপরিচিত কোন ম্যালওয়ার ফাইল আছে কি না চেক করবেন
৩/ ব্যাকাপ নেয়ার পর অনেক সময় আমরা ব্যাকয়াপ ফাইল ডিলিট করি না ভুলক্রমে। সেটি চেক করবেন।
৪/ মিডিয়া ডিরেক্টরি থেকে অপ্রয়োজনীয় কিছু বড় সাইজের ফাইল (খুবই সতর্কতার সাথে) ডিলিট করে দিয়ে দেখতে পারেন।
৫/ কোনভাবেই না হলে বুঝবেন যে আপনার আরো বেশী স্পেস প্রয়োজন। হোস্টিং কোম্পানির সাথে কথা বলে হোস্টিং স্পেস বাড়িয়ে নিতে পারেন।
[আরও পড়ুনঃ সেরা স্পিড পাচ্ছেন বিডিআইএক্স ওয়েব হোস্টিং কিনলেই]
ওয়েব সাইটের রিসোর্স ইউজেস ফুল
এটাও সিপ্যানেলে লগ ইন করে চেক করতে হবে এরকম কোন মেসেজ আসে কি না!

এখানে, Physical Memory Usage, Entry Process, Number of Process এগুলোর কোন একটি বা একের অধিক যদি এরকম লাল রঙ দিয়ে ওয়ার্নিং আসে, তাহলে বুঝতে হবে ওয়েবসাইট অনেক হাই লোড নিচ্ছে।

এরকম যদি আসে, তাহলে যা করতে পারেন,
১/ টেম্প ফাইল এবং ক্যাশ ক্লিয়ার করতে পারেন
২/ অপরিচিত কোন ম্যালওয়ার ফাইল আছে কি না চেক করবেন
৩/ সাইট প্রপারলি অপটিমাইজ করা আছে কি না দেখবেন। প্রয়োজনে অপটিমাইজেশন এক্সপার্ট হায়ার করতে পারেন, পেন্টানিক আইটি থেকে।
৪/ সব প্লাগিন ডিএক্টিভেট করে একটি একটি করে একটিভ করতে হবে, আর রিসোর্স চেক করতে হবে।
৫/ Query Monitor প্লাগিন ব্যাবহার করে চেক করতে পারেন, কোন পিএইচপি এরর বা ডুপ্লিকেট কুয়েরি আছে।
৬/ কোনভাবেই না হলে বুঝবেন যে আপনার আরো বেশী রিসোর্স প্রয়োজন। হোস্টিং কোম্পানির সাথে কথা বলে হোস্টিং এর প্যাকেজ চেঞ্জ করে নিতে পারেন (প্রয়োজনে ভিপিএসে শিফট করবেন)।

ওয়েবসাইটের কোন প্লাগিন করাপ্ট হয়েছে
এই সমস্যাটি হচ্ছে কি না বোঝার জন্য প্রথমে সবগুলো প্লাগিন ডিএক্টিভেট করবেন, থিমটি ডিফল্ট থিমে (টুয়েন্টি টুয়েন্টি বা যে কোন একটি) সুইচ করে নেবেন।

এবার আপলোড দিয়ে ট্রাই করবেন, যদি ঠিকভাবে আপলোড হয়ে যায় তাহলে বুঝবেন প্লাগিনে সমস্যা। একটি একটি প্লাগিন একটিভ করবেন আর একবার করে আপলোড দিয়ে দেখবেন একটি করে ইমেজ। যে প্লাগিনটি এক্টিভ করার পর সমস্যাটি হয়েছে, বুঝবেন সে ই মূল কালপ্রিট।

সমাধানঃ
প্লাগইন টি ওয়ার্ডপ্রেস এর ডিরেক্টরি থেকে কিংবা প্লাগিন এর সাইট থেকে নতুন ভাবে ডাউনলোড করে প্লাগিন ফাইলে সরাসরি আপলোড করে এক্সট্রাক্ট (জিপ থাকলে) করে দিতে হবে। তা ও যদি না হয়, প্লাগিন এর পুরাতন ভার্সন ডাউনলোড করে ট্রাই করতে হবে।

কোনভাবেই যদি না করা যায়, তাহলে চেষ্টা করতে হবে যে সেই প্লাগিন ছাড়া আমরা কোন বিকল্প প্লাগিন দিয়ে একই কাজটি করতে পারি কি না। যদি না করা যায় সেক্ষেত্রে প্লাগিন এর ডেভেলপারের সাথে যোগাযোগ করতে হবে। প্লাগিন এর ওয়েবসাইটে (প্রিমিয়াম হলে) সাপোর্ট টিকেট কিংবা ফোরাম পোষ্ট করা যেতে পারে।

ফাইল পারমিশনে সমস্যাঃ
সিপ্যানেলে লগ ইন করে ফাইল ম্যানেজারে ঢুকতে হবে। public_html > wp-content > Uploads ডিরেক্টরির উপর রাইট বাটন দিয়ে Change Permission এ ক্লিক করতে হবে,

এখান থেকে ফাইল পারমিশন ৭৫৫ না দেয়া থাকলে ৭৫৫ করে দিয়ে সেভ করতে হবে,

এবার একই কাজটি আপলোডস ফোল্ডারের ভেতরের সবগুলো ফোল্ডারেও করে দিতে হবে। সিপ্যানেল থেকে এই কাজটি ম্যানুয়েলি করতে হয় বলে একটু সময় সাপেক্ষ।

একই কাজটি আপনি যদি এফটিপি (যেমন, Filezilla) ব্যাবহার করে করেন, তাহলে একসাথে সবগুলো ফোল্ডারকে করে নিতে পারবেন,

এখানে Apply to Directories Only অপশনটি চেকড অবস্থায় থাকলেই চলবে,

এভাবেও কাজ না হলে দেখতে হবে,

মেক্সিমাম ফাইল সাইজ লিমিট করা কি না!
সমস্যাটি এরকম কি না সেটি দেখুন,

এরকম হলে ওয়েবসাইটের মেক্সিমাম আপলোড লিমিট বাড়িয়ে নিন।

উপরের কোন পদ্ধতিই কাজ না করলে আপনার হোস্টিং কোম্পানির সাথে কথা বলুন। প্রয়োজনে ভালো সাপোর্ট না পেলে হোস্টিং অন্য কোম্পানীতে শিফট করুন।

মেক্সিমাম সাপোর্ট সহ বেস্ট স্পিডের ওয়েব হোস্টিং পাচ্ছেন পেন্টানিক আইটিতে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে